ফিরে দেখা ‘ইরফান’

406
Looking back 'Irfan'
Looking back 'Irfan'

তিনি নিজেই ছিলেন নিজের প্রতিযোগী। প্রতিটি চরিত্রেই নতুন ভাবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। তিনি নেই কিন্তু থেকে গিয়েছেন তাঁর কাজ, তাঁর সৃষ্টি। তিনি বলিউডের বিখ্যাত অভিনেতা ইরফান খান। আজ তাঁর জন্মদিন। ইরফান খানের সেরা ৫ ছবি বেছে নেওয়া খুব একটা সহজ নয়। তিনি অসামান্য প্রতিটি ছবিতেই। তবু জন্মদিনে রইল ইরফানের ৫ ছবির তালিকা যা এখনও পর্যন্ত আপনার দেখা না থাকলে দেখে নিন আজই

পান সিং টোমার: ২০১১ সালে মুক্তি পেয়েছিল । আর ২০১২ সালে এই ছবির জন্য অভিনেতার ঘরে এসেছিল জাতীয় পুরস্কার। তিগমাংশু ধুলিয়া ছিলেন পরিচালক। এক জাতীয় স্টিপলিচেস খেলোয়াড়ের চম্বলের অরণ্যের ডাকাত হয়ে ওঠার গল্প ফুটে উঠেছিল এই ছবির মধ্যে দিয়ে। শুধুমাত্র ইরফানকে দেখার জন্য এই ছবি আপনার দেখা উচিত।

দ্য লাঞ্চবক্স: লাঞ্চবক্সকে কেন্দ্র করে এক ভালবাসার গল্প, এক মধ্যবয়সের বন্ধুত্বের গল্প। হিন্দি সিনেমায় এই কনসেপ্টে ছবি যে ওই প্রথম। ইরফানের ইচ্ছাকৃত ‘ম্যানারিজম’, চাহনি, সব কিছু উপলব্ধি করার জন্য দেখে ফেলতেই পারেন এই ছবি।

মকবুল: শেক্সপিয়ারের উপন্যাস ম্যাকবেথের হিন্দি সংস্করণ ‘মকবুল’। পরিচালনায় ছিলেন বিশাল ভরদ্বাজ। বলিউডের একগুচ্ছ প্রথম সারির দক্ষ অভিনেতা অভিনয় করেছিলেন । ২০০৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই ছবিতে টাব্বু থেকে শুরু করে ওম পুরি, নাসিরুদ্দিন শাহ, পঙ্কজ কাপুর কে ছিলেন না! ম্যাকবেথ নিয়ে বিভিন্ন ভাষায় হয়েছে নানা ছবি। তবে ইরফানের অভিনয় মকবুলের ইউএসপি, ঘোর কাটতে বেশ কয়েক দিন সময় লাগবে আপনার।

লাইফ অব পাই: এই ছবিতে গোটা ছবি জুড়ে তিনি ছিলেন এমনটা নয়। ছবিতে সূরজ শর্মা যদি হন নায়ক। ইরফান ছিলেন ছবির প্রধান চালিকাশক্তি। অ্যাং লি পরিচালিত এই হলিউড সিনেমা মুক্তি পেয়েছিল ২০১২ সালে। বিশ্বের দরবারে ‘হিরো’ হয়ে উঠেছিলেন ইরফান খান।

তলোয়ার: ইরফান এই ছবির প্রাণকেন্দ্র। সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি ছবিটি আপনাকে সরাসরি দাঁড় করাবে বেশ কিছু প্রশ্নের সম্মুখে যার উত্তর হয়তো আপনার কাছেও নেই