ভোপালের হাসপাতালে ভয়াবহ আগুন, পুড়ে মৃত ৪ শিশু

আগুন লাগার খবর ছড়িয়ে পড়তেই হাসপাতাল চত্বরে তীব্র আতঙ্ক ছড়ায়

327
bhupal

News Desk: ভয়াবহ আগুন ভোপালের কমলা নেহরু (kamala nehru child hospital) শিশু হাসপাতালে। অগ্নিকাণ্ডের এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত চারজন শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

আগুন লাগার খবর ছড়িয়ে পড়তেই হাসপাতাল চত্বরে তীব্র আতঙ্ক ছড়ায়। অনেক রোগীই ভয় পেয়ে ছুটোছুটি শুরু করেন। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছন রাজ্যের মন্ত্রী বিশ্বাস সরং (biswas sarang)। কী কারণে এই আগুন লাগল তা এখনও জানা যায়নি। তবে দমকলের অনুমান, খুব সম্ভবত শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছে।

মন্ত্রী বিশ্বাস সরং জানিয়েছেন, সোমবার রাতে ভোপালের (bhopal) কমলা নেহরু হাসপাতালের স্পেশাল নিউবর্ন ওয়ার্ডে আগুন লাগে। ওই আগুনে ৪ সদ্যজাত শিশুর পুড়ে মৃত্যু হয়েছে। মনে করা হচ্ছে শর্টসার্কিট থেকেই আগুন লেগেছে। এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উচ্চপর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান (shibraj sing chouan)।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে ওই হাসপাতালের শিশু বিভাগের কমপক্ষে ৬০ জন শিশু ভর্তি ছিল। সোমবার রাতের ওই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুড়ে মৃত্যু হয়েছে চারটি শিশুর। বেশ কয়েক জন জখম হয়েছে। তবে ওই ওয়ার্ডে ভর্তি থাকা অন্য শিশুদের অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গেই সরিয়ে নেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান এদিন বলেছেন, ভোপালের কমলা নেহরু হাসপাতালে আগুন লেগে চারটি শিশুর মৃত্যুর ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। কী কারণে এই আগুন লাগল তা জানতে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত করা হবে। একইসঙ্গে

মুখ্যমন্ত্রী মৃতদের পরিবারকে ৪ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।
মঙ্গলবার সকালে ফতেহগড় ফায়ার স্টেশনের ইনচার্জ জুবের খান জানান, সোমবার রাত সাড়ে নটা নাগাদ প্রথম আগুন লাগে। আগুন নেভাতে ঘটনাস্থলে যায় দমকলের ১০টি ইঞ্জিন। বেশ কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কী কারণে এই আগুন লাগল তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে অনুমান করা হচ্ছে শর্টসার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে। উল্লেখ্য, গত সপ্তাহেই আমেদাবাদ সিভিল হাসপাতালে আগুন লেগে ১১ জন করোনা রোগী প্রাণ হারিয়েছিলেন। জখম হয়েছিলেন আরও আটজন।