দীপাবলির দুঃসংবাদ: প্রতি সিলিন্ডারে দাম বাড়ল ২৬৫ টাকা

সপ্তাহের প্রথম দিনেই এই দুঃসংবাদ পেল সাধারণ মানুষ

570
LPG Gus kolkata

News Desk, New Delhi: দীপাবলির ঠিক আগেই ফের একবার দুঃসংবাদ বয়ে আনলো কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকার। দীপাবলিতে যখন সকলেই একটু আনন্দ করার কথা ভাবছেন তখনই মোদি সরকার প্রতিটি বাণিজ্যিক গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ২৬৫ টাকা করে দাম বাড়াল।

সপ্তাহের প্রথম দিনেই এই দুঃসংবাদ পেল সাধারণ মানুষ। তবে এদিন গৃহস্থবাড়িতে ব্যবহৃত বা ভর্তুকিযুক্ত রান্নার গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়নি। যদিও সাধারণ মানুষের আশঙ্কা দু’একদিনের মধ্যেই এই গ্যাসের দামও বাড়ানো হবে।

দীপাবলি বা উৎসবের মরসুমে অনেকেই হোটেল-রেস্তোরাঁয় দু’একদিন খেতে যান। এক ধাক্কায় রান্নার গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ২৬৫ টাকা বাড়ায় হোটেল-রেস্তোরাঁয় খাওয়ার জন্য যে বাড়তি দাম দিতে হবে তা না বললেও চলে। পাশাপাশি যারা বিভিন্ন সংস্থার কাছ থেকে হোম ডেলিভারির মাধ্যমে খাবার আনান তাঁদেরও এবার বাজেট বাড়াতে হবে। সোমবার প্রতিটি বাণিজ্যিক গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ২৬৫ টাকা বাড়ার পর কলকাতায় ১৯ কেজি একটি এলপিজি সিলিন্ডারের দাম হয়েছে ২০৭৩.৫০ টাকা। কলকাতার পাশাপাশি দিল্লি এবং চেন্নাইয়েও বাণিজ্যিক গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ২০০০ টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছে। মুম্বইয়ে দাম প্রায় ২০০০ টাকা ছুঁইছুঁই।

এই মুহূর্তে ভর্তুকি যুক্ত গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ৯২৬ টাকা। সাধারণ মানুষ মনে করছেন, দু-একদিনের মধ্যেই এই দাম বেড়ে ১০০০ টাকায় পৌঁছবে। বাজার বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে অশোধিত তেলের দাম বৃদ্ধির কারণেই ঘরোয়া এলপিজি সিলিন্ডারের দাম বাড়ছে। চলতি বছরে এ পর্যন্ত আটবার ভর্তুকিযুক্ত গ্যাস সিলিন্ডারের দাম বাড়ানো হয়েছে। হয়তো আগামীকাল বা পরশুই বাড়বে ভর্তুকি যুক্ত গ্যাস সিলিন্ডারের দাম। ২০২১- এর জানুয়ারিতে ভর্তুকি যুক্ত গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ছিল ৬৯৪ টাকা। তারপর আট দফায় তার দাম বেড়ে এই মুহূর্তে হয়েছে ৯২৬ টাকা।

দেশের বাজারে পেট্রোল, ডিজেল ও গ্যাস সিলিন্ডারের দাম বৃদ্ধির পেছনে দুটি কারণ থাকে। একটি হল আন্তর্জাতিক বাজারে অশোধিত তেলের দাম এবং টাকা ও ডলারের বিনিময় হার।

তবে এই মুহূর্তে যে আন্তর্জাতিক বাজারে অশোধিত তেলের দাম দারুন কিছু বেড়েছে তা নয়। এই মুহূর্তে প্রতি ব্যারেল তেলের দাম ৮৪ ডলারের মত। কিন্তু মোদি সরকার পেট্রোল, ডিজেল-সহ সবধরনের পেট্রোপণ্যের উপর এতটাই কর আরোপ করেছে যে সাধারণ মানুষের কোনওভাবেই স্বস্তি মিলছে না। অন্যদিকে টাকা ও ডলারের বিনিময় হার দাঁড়িয়েছে প্রায় ৭৫ টাকা।

ঘন ঘন রান্নার গ্যাসের দামবৃদ্ধি সম্পর্কে আপনার মতামত কী? লিখে জানান

[contact-form][contact-field label=”Name” type=”name” required=”1″][contact-field label=”Email” type=”email” required=”1″][contact-field label=”Message” type=”textarea”][/contact-form]