জম্মুকে আর কোনও বৈষম্যের মুখে পড়তে দেব না: শাহী-সংকল্প

378
Amit Shah

News Desk: আগেকার দিন এবার ভুলে যান। আগে যা হওয়ার হয়েছে। নতুন করে জম্মুকে আর কোনও ভাবেই অবিচার ও বৈষম্যের শিকার হতে দেব না। জম্মুর উপর যাতে কোনও অবিচার না হয় তা নিশ্চিত করবে সরকার। রবিবার জম্মু-কাশ্মীর সফরের দ্বিতীয় দিনে এই মন্তব্য করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

জম্মুতে এদিন শাহ বলেন, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের লেফটেন্যান্ট গভর্নর এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র প্রসাদের নেতৃত্বে কাশ্মীরে শুরু হয়েছে উন্নয়নের নতুন যুগ। জম্মু ও কাশ্মীরের যথাযথ উন্নয়ন করাই কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকারের মূল লক্ষ্য। ২০১৯-এর ৫ অগাস্ট জম্মু-কাশ্মীরের উপর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করা হয়। এদিন শাহ বলেন, ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করার পরেই পশ্চিম পাকিস্তানের শরণার্থী পাহাড়ি, বাল্মিকী, গুজ্জর বাকেরওয়াল এই সমস্ত সম্প্রদায়ের মানুষের প্রতি ন্যায়বিচার করা হয়েছে। এদিনের সফরে জম্মুতে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির একটি নতুন ক্যাম্পাসের উদ্বোধন করেন শাহ।

একই সঙ্গে স্থানীয় রাজনীতিবিদদের কটাক্ষ করে শাহ বলেন জম্মু-কাশ্মীরের সাধারণ মানুষের জন্য এখানকার নেতারা কি করেছেন? তিনটি রাজনৈতিক পরিবার ৭০ বছর ধরে জম্মু-কাশ্মীরের শাসন ক্ষমতা ভোগ করেছে। কিন্তু এই দীর্ঘ সময়ে তারা এ রাজ্যের জন্য কি করেছে তার জবাব কি দিতে পারবে? শাহ তাঁর ভাষণ স্পষ্ট জানিয়ে দেন, জম্মু-কাশ্মীরে উন্নয়নের যে ধারা শুরু হয়েছে কোনওভাবেই তা বন্ধ হবে না। কাশ্মীরে আর কারও দাদাগিরি চলবে না। কাশ্মীরের মাটি হল ঈশ্বরের মাটি। এখানে মাতা বৈষ্ণোদেবীর মন্দির রয়েছে। এই মাটিতেই আত্মত্যাগ করেছিলেন শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। যারা জম্মু-কাশ্মীরের শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে তারা কেউ পার পাবে না।

শাহ এদিন আরও বলেন, ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের দেড় বছরের মধ্যেই জম্মু-কাশ্মীরে ১২ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ এসেছে। ২০২২ সালের মধ্যে আরও ৫১ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ চলে আসবে। এই বিনিয়োগ হলে রাজ্যের প্রায় ৫ লাখ যুবক-যুবতীর কর্মসংস্থান হবে।

তবে, শাহর সফরের দ্বিতীয় দিনেও রক্তাক্ত হয়েছে ভূস্বর্গ। এদিন সকাল দশটা নাগাদ সোপিয়ানের বাবাপোরা অঞ্চলে টহলরত জওয়ানদের লক্ষ্য করে হঠাৎ গুলি চালায় জঙ্গিরা। সঙ্গে সঙ্গেই পাল্টা জবাব দেয় নিরাপত্তা বাহিনী। উভয়পক্ষের এই গুলির লড়াইয়ের মাঝে পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন এক নিরীহ দুধ ওয়ালা। মৃত দুধওয়ালার নাম শাহিদ আহমেদ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এদিন বিষয়টি জানার পর শাহিদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। একইসঙ্গে তিনি বলেন, যারা শাহিদের মত নিরীহ মানুষকে খুন করে তারা কোনওভাবেই পার পাবে না। তাদের বিরুদ্ধে সরকার উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে।