""
Tuesday, September 27, 2022
HomeঅফবিটNeymar: সাম্বা ফুটবলের সুপারস্টার নেইমারের নারীসঙ্গ

Latest Posts

Neymar: সাম্বা ফুটবলের সুপারস্টার নেইমারের নারীসঙ্গ

- Advertisement -

নিউজ ডেস্ক: নেইমার (Neymar) দ্য সিলভা স্যান্টোস জুনিয়র। মাঠের খেলা দিয়ে যেমন দর্শকদের মন ভরান ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার, তেমনি নিজের গ্ল্যামার দিয়ে মহিলাদের মন কাড়তেও ওস্তাদ নেইমার। প্রায় এক ডজন মহিলার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ও কেচ্ছা জানা গিয়েছে৷

তবে অতিমাত্রায় নারীসঙ্গ যে বিপদ ডেকে আনতে পারে, তা ইতিমধ্যেই টের পেয়েছেন পিএসজি-র হয়ে খেলা বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই ফুটবলার। ধর্ষণ মামলায় জেলে যেতে বসেছিলেন৷ তবে উপযুক্ত সাক্ষীর অভাবে বেঁচে যান। তবে তিনি যে নেইমার। পাদ-প্রদীপের আলোয় না-থাকলে কী তাঁর চলে। আর প্রচারের শিখরে থাকায় গ্ল্যামার জগতের মহিলারাও ঝাঁকে ঝাঁকে পতঙ্গের মত যেন ধরা দেয় তাঁর বাহুতে। যে কারণে ফুটবল প্লে-বয়দের প্রেমের কাহিনীও দীর্ঘ।

- Advertisement -

লারিসা অলিভিয়েরা: লারিসা ডে মাকেডো বা লারিসা অলিভিয়েরা একজন পপ সঙ্গীত শিল্পী। সঙ্গীত জগতে আনিতা নামেই বেশি পরিচিত লারিসা। নেইমারের দেওয়া এক পার্টিতেই দু’জনের পরিচয়। সেই পার্টিতেই পিছনের দরজা দিয়ে সবার আড়ালে ঢুকেছিলেন তিনি৷ কিছুটা সময় থেকে আবার বেড়িয়েও যান। একই সময় পার্টি থেকে বের হয়ে যান নেইমারও। স্বীকার না-করলেও দু’জনকে একত্রে দেখা গিয়েছে বেশ কয়েকবার।

মায়রা কার্দি: ব্রাজিলের এই ফিটনেস এক্সপার্ট এক সময় নেইমারের প্রতিবেশী ছিলেন। পরে উপস্থাপিকা ও সাংবাদিক হওয়ার সুযোগ ছেড়ে চলে যান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে ডিগ্রী নিয়ে হয়েছেন ফিটনেস কোচ। নেইমারের সঙ্গে কতটা ঘনিষ্ঠ ছিলেন সে বিষয়ে জানা না-গেলেও প্রাক্ততন প্রতিবেশী সম্পর্কে বেশ ইতিবাচক মায়রা। তাঁর মতে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল তারকা হলেন একজন অসাধারণ পুরুষ যাঁর হৃদয় সোনা দিয়ে মোড়ানো।

ক্যারোলিনা দান্তেস: নেইমারের আট বছরের একমাত্র ছেলে দাভি লুকার মা হলেন এই ক্যারোলিনা দান্তেস। ২০১১ সালে সন্তানের জন্ম হওয়ার আগেই আলাদা হয়ে যান দুজনে। দূরে থাকলেও দুজনের সম্পর্ক বেশ উষ্ণ। নেইমার নিজেও তার ছেলের বিষয়ে বেশ যত্নশীল। তাই সাবেক বান্ধবীর সঙ্গে একটা ভালো সম্পর্কই বজায় রেখে চলেন তিনি।

ড্যানিয়েলা কারভালহো: ২০১১ সালের অগস্ট পর্যন্ত প্রেম করেছেন ড্যানিয়েলা ও নেইমার। দু’বার একান্ত সময় কাটাতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত তা হতে দেয়নি পাপ্পারাৎজিরা। এক অনুষ্ঠানে দুজনের পরিচয়। ড্যানিয়েলার সঙ্গে দেখা করতে মাঝে মাঝেই রিও-তে যেতেন নেইমার। কিন্তু ২০১১ সালে নেইমার বাবা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসার পরই আলাদা হয়ে যান দু’জনে।

থাইলা আয়ালা: ২০১৬ সালে ইবিজা সমুদ্র সৈকতে দু’জনকে প্রায় অর্ধনগ্ন অবস্থাতে দেখা যাওয়া নিয়েও কম কেচ্ছা হয়নি। তারপরও একাধিকবার নেইমারের সঙ্গে দেখা গিয়েছে থাইলাকে৷ কিন্তু সম্পর্ক বেশিদূর গড়ায়নি।
বারবারা ইভান্স: শুধু মডেল শুধু নেইমার নয়, একাধিক ফুটবলারেরও প্রেয়সী ছিলেন। যথারীতি নেইমারের সঙ্গেও তাঁর সম্পর্কও বেশি দূর এগোয়নি। ২০১১ সালে দু’জনকে শেষবার এক সঙ্গে দেখা গিয়েছিল৷
ক্যারোল আব্রাঞ্চেস: ব্রাজিলের এই মডেল ও নৃত্যশিল্পীকে দেখা গিয়েছে নেইমারের প্রমোদতরীতে। এ বিষয়ে ব্রাজিলীয়ও ফুটবল তারকা মুখ না-খুললেও ক্যারোল নিজে জানিয়েছেন, তাঁর সঙ্গে নেইমারের বিশেষ সম্পর্কের কথা৷

ক্লোয়ি গ্রেস মর্টেজ: থাইলা আয়ালাক্লোয়ি গ্রেস মর্টেজ৷ হলিউডে বেশ পরিচিত এই উঠতি অভিনেত্রী। ডেস্পারেট হাউজওয়াইবস, থার্টি রকসের মত টিভি সিরিজ ও একাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন ক্লোয়ি। ২০১৪ বিশ্বকাপের আগে নেইমারের সঙ্গে তাঁর প্রেম মিডিয়ার কাছে চর্চিত বিষয় ছিল৷ তবে বিষয়টি কখনও লুকাতে চাননি ক্লোয়ি।

ব্রুনা মার্কুইজিন: নেইমারের সঙ্গে সবচেয়ে লম্বা সময় ধরে সম্পর্কে জড়িয়েছেন ব্রাজিলিয়ান অভিনেত্রী ব্রুনা। একাধিকবার ছাড়াছাড়ি হলেও দু’জনে বারবার জড়িয়ে যান সম্পর্কে। ২০১৮ সাল পর্যন্ত একত্রে ছিলেন নেইমার ও মার্কুইজিন৷

নাটালিয়া বারুলিচ: ক্যালিফোর্নিয়ায় কিউবান মায়ের সন্তান এই ব্রাজিলিয়ান এই অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন নেইমার। এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকলেও বেশ কয়েকবার প্যারিসে আসা-যাওয়া করতে দেখা গিয়েছে নাটালিয়াকে। নিজের ইনস্টাগ্রামে নেইমারের ছবি দিয়ে ‘খুব মিস করছি তোমাকে’লিখে সম্পর্কের বারুদটা নিজেই উসকে দিয়েছেন নাটালিয়া।

গাবিলি: নেইমারের নারী সঙ্গের সর্বশেষ গুঞ্জন গাবিলি৷ ২৫ বছর বয়সি গায়িকার আসল নাম গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তা। চোটের কারণে ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে খেলতে না-পারলেও নারী সঙ্গ থেকে দূরে থাকেননি নেইমার। ব্রাজিলের পপ তারকা গাবিলির নতুন সম্পর্কে জড়ানোর গুঞ্জন ছড়িয়েছে নেইমারকে ঘিরে। করোনা মহামারিতে নেইমার মজেছেন নতুন প্রেমে৷ আট মাস ধরে গাবিলির সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে মিশছেন নেইমার। মহামারির শুরুতে ইনস্টাগ্রামে পরিচয় হয় দু’জনের। করোনা মহামারির মধ্যেই নেইমার ও গাবিলি দেখা করেছেন বেশ কয়েকবার। পিএসজি-তে খেলাকালীন প্যারিসে গিয়ে নেইমারের সঙ্গে দেখা করেছেন গাবিলি। এছাড়া নেইমারের বাসাতেও থেকেছেন বন্ধুবান্ধব নিয়ে। নিকটতম অতীতে দু’জন একসঙ্গে সময় কাটিয়েছেন ব্রাজিলে।

- Advertisement -

Video News

Top News Headlines

Latest Posts

Don't Miss