নামাজ বিবৃতির জের, কড়া প্রতিক্রিয়া হর্ষ ভোগলের

362
Harsha Bhogle

Sports Desk: পাকিস্তানের প্রাক্তন বোলার ওয়াকার ইউনিস তার বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য তীব্র সমালোচনার মুখে। ওয়াকার ইউনিস বলেন, ভারত বনাম পাকিস্তান আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপ ২০২১ ম্যাচের সবচেয়ে বিশেষ মুহূর্তটি ছিল যখন পাক কিপার মহম্মদ রিজওয়ান হিন্দু ভারতীয়দের মাঝে দাঁড়িয়ে নামাজ পড়েছিলেন। ঘটনাটি ঘটে ম্যাচের ড্রিঙ্ক ব্রেকের সময়ে, মাঠে তখন ভারতীয় ক্রিকেটাররা ছিল।

পাকিস্তানের প্রাক্তন বোলিং কোচ ওয়াকার ইউনিস একটি বেসরকারি নিউজ চ্যানেলে রবিবারের হাইভোল্টেজ ভারত- পাকিস্তান ম্যাচ সম্পর্কে কথা বলার সময় বলেছিলেন,”সবচেয়ে ভালো কথা, রিজওয়ান যা করেছে, মাশাল্লা, সে হিন্দুদের ঘেরা মাটিতে নামাজ পড়ল, সেটা সত্যিই আমার জন্য বিশেষ কিছু ছিল।”

ওয়াকার ইউনিসের এই মন্তব্যটি অনুরাগীদের কাছে ভালভাবে ঠেকেনি এবং এমনকি ক্রিকেট বিশ্লেষক হর্ষ ভোগলেকেও বিরক্ত করেছে, যিনি সাধারণত কোনও বিতর্কে প্রবেশ করা থেকে দূরে থাকেন এবং প্রায়শই কূটনৈতিক থাকেন। গোটা বিতর্কের প্রতিক্রিয়ায় হর্ষ ভোগলে আশা রাখেন,আমি নিশ্চিত ওয়াকারের কাছ থেকে ক্ষমা চাওয়া হবে।

হর্ষ ভোগলে এই বিষয়টিকে “সবচেয়ে হতাশাজনক জিনিসগুলির মধ্যে একটি” বলে মনে করেন এবং প্রাক্তন ক্রিকেটারের কাছ থেকে আসা এমন মন্তব্যকে “ভয়ঙ্কর” বোধ বলে মনে করেন।

মঙ্গলবার ওয়াকার ইউনিসের বিতর্কিত মন্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হতেই টুইট করে হর্ষ ভোগলে লেখেন,”ওয়াকার ইউনিসের মতো উচুদরের একজন ব্যক্তির এটা বলা যে রিজওয়ানকে হিন্দুদের সামনে নামাজ পড়তে দেখা তার কাছে খুব বিশেষ ছিল, আমি শুনে খুবই হতাশ হয়েছি। আমাদের মধ্যে অনেকেই এই ধরনের জিনিসগুলিকে খেলার পরিসরে নীচে রাখে এবং খেলাধুলোর মাঝে এই ধরনের কথা শুনতে পাওয়া ভয়ানক।”

৬০ বছর বয়সী অভিজ্ঞ ধারাভাষ্যকার আরও বিশ্বাস করেন যে ওয়াকার, যিনি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে পর্যন্ত পাকিস্তানের বোলিং কোচ ছিলেন, তার বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইবেন, তিনি (হর্ষ ভোগলে) বিশ্বাস করেন যে ধর্মের ভিত্তিতে মানুষের মধ্যে বিভাজন ঘটে।

একই সঙ্গে হর্ষ ভোগলে পাকিস্তানি ভক্তদের কাছে থেকেও আশা রাখেন যে, তাদের কিংবদন্তি ক্রিকেটারের এই মন্তব্যের নিন্দা তারাও করবে। এই প্রসঙ্গে হর্ষ ভোগলে টুইটে লেখেন,”আমি সত্যিই আশা করি যে পাকিস্তানের অনেক প্রকৃত ক্রীড়াপ্রেমী এই বিবৃতিটির বিপজ্জনক দিকটি দেখতে সক্ষম হবেন এবং আমার হতাশার সাথে যোগ দেবেন। আমাদের মতো ক্রীড়াপ্রেমীদের জন্য এটাকে খুব কঠিন করে তোলে এবং লোকেদের বলার চেষ্টা করা যে এটি শুধুমাত্র খেলা, শুধু একটি ক্রিকেট ম্যাচ।” এরপরে রিটুইট করে ভারতীয় ক্রিকেট বিশ্লেষক লেখেন,”আপনি মনে করবেন ক্রিকেটাররা, আমাদের খেলার দূত হিসেবে, একটু বেশি দায়িত্বশীল হবেন। আমি নিশ্চিত ওয়াকার থেকে ক্ষমা চাওয়া হবে। আমাদের ক্রিকেট বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে, ধর্মের ভিত্তিতে বিভক্ত করা নয়।”

প্রসঙ্গত, রোহিত শর্মা, কেএল রাহুল এবং বিরাট কোহলিকে আউট করে শাহিন আফ্রিদির স্মরণীয় পারফরম্যান্সের জেরে পাকিস্তান ১৮ ওভারের মধ্যে ১৫২ রান তাড়া করে ভারতকে ১০ উইকেটে হারিয়ে, ঐতিহাসিক জয় ছিনিয়ে নিয়েছে।