ইতিহাস ভারতের, ৪১ বছর পর অলিম্পিক পোডিয়ামে হকি টিম

শুরুতেই গোল করে ভারতকে চাপের মুখে রেখেছিল জার্মানি। এক সময় ১-৩ গোলে পিছিয়ে গিয়েছিল ভারত। কিন্তু দ্বিতীয় কোয়ার্টারেই ম্যাচে ফেরেন মনপ্রীতরা।

284
Mens-Hockey tean india

শেষবার ১৯৮০’র অলিম্পিকে সোনা জিতেছিল ভারত। বিশ্ব মঞ্চে সেটাই ছিল ভারতের শেষ বড় সাফল্য। তারপর দীর্ঘ ৪১ বছর সেভাবে বিশ্ব মঞ্চে সাফল্যের মুখ দেখেনি ভারতীয় হকি টিম। সেই অপেক্ষার অবসান ঘটল শ্রীজেশদের হাত ধরে। ৪১ বছর পর অলিম্পিক হকিতে পদক জিতল ভারত। ব্রোঞ্জের লড়াইয়ে ৫-৪ গোলে জার্মানিকে হারাল ভারত। জোড়া গোল করে ম্যাচের নায়ক সিমরণজিৎ।

শুরুতে ৩-১ গোলে পিছিয়ে গেলেও শেষ পর্যন্ত জয় ছিনিয়ে নিল হকি টিম। টোকিও অলিম্পিক্সে প্রথম থেকেই ভারতীয় পুরুষ দলের পারফরম্যান্স খারাপ ছিল না। টানা চার ম্যাচ জিতে সেমিফাইনালের লড়াই ছিল। যদিও তৃতীয় স্থান নির্ণায়ক ম্যাচে জার্মানির বিরুদ্ধে ভারতের লড়াইটা একেবারেই সহজ ছিল না। খেলতে নেমে প্রথম ২ মিনিটেই ধাক্কা পেয়েছিল মনপ্রীতরা। শুরুতেই গোল করে ভারতকে চাপের মুখে রেখেছিল জার্মানি। ১৭ মিনিটে গোল শোধ করে সমতা ফেরান সিমরনজিত সিং। এরপর ২৪ এবং ২৫ মিনিটে পরপর দু’গোল করে ৩-১ গোলে এগিয়ে যায় জার্মানরা।

২৭ এবং ২৯ মিনিটে পরপর দুগোল করে সমতা ফেরায় টিম ইন্ডিয়া। ম্যাচের তৃতীয় কোয়ার্টারের শুরুতেই এগিয়ে যায় টিম ইন্ডিয়া। এবারে পেনাল্টি কর্নার থেকে দুর্দান্ত গোল করেন রুপিন্দর পাল সিং। টিম ইন্ডিয়া এগিয়ে যায় ৫-৩ গোলে। ম্যাচের চতুর্থ কোয়ার্টারে এসে আরও এক গোল শোধ করে জার্মানরা।

টোকিও অলিম্পিকে এটা ভারতের পঞ্চম পদক। ভারতীয় হকি দলের এই সাফল্যকে ঐতিহাসিক বলে বর্ণনা করেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, ”ঐতিহাসিক! আজকের দিন সকল ভারতীয়র মনে থাকবে।” প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি ভারতীয় হকি দলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দও। টুইট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাহুল গান্ধী, জগদীপ ধনখড়ও।