ইরান-চাইনিজ তাইপেকে হারানো অতীত, জয়ের জন্য লড়তে হবে: মিডফ্লিডার সঞ্জু যাদব

386
AFC Women

Sports desk: AFC মহিলা এশিয়ান কাপ টুর্নামেন্ট ২০২২ ভারতে আয়োজিত হবে। এই টুর্নামেন্টের ড্র গত বুধবার হয়। ড্র অনুষ্ঠিত হওয়ার পরের দিন শুক্রবার জামশেদপুরে ভারতীয় মহিলা দলের পুরো ফোকাস আসন্ন টুর্নামেন্ট ঘিরে। সম্প্রতি ভারতীয় মহিল সিনিয়র ফুটবল টিম বিদেশে এক্সপোজার সফর থেকে ফিরে এসেছে, যেখানে তারা সম্পূর্ণ ভিন্ন আবহাওয়ার সাথে তিনটি ভিন্ন দেশে ৬ টি কঠিন প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হয়েছিল।

বুধবার টিম হোটেলে ড্র লাইভ দেখার জন্য খেলোয়াড়রা সবাই একত্রিত হয়েছিল, পরের বছর ভারতে আয়োজিত AFC মহিলা এশিয়ান কাপে তারা কার মুখোমুখি হবে তা দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিল।

এই নিয়ে ভারতীয় মহিলা দলের অধিনায়ক আশালতা দেবী বলেন,”আমাদের সম্মিলিত স্বপ্ন আছে, আর তা হলো এশিয়ান কাপে ভালো করার। আমাদের এখন আর মাত্র কয়েক মাস বাকি আছে, এবং ড্র লাইভ দেখা আমাদের সকলের জন্য একটি বিশাল অনুপ্রেরণাদায়ক ফ্যাক্টর ছিল।” মহিলা দলের অধিনায়ক এও বলেন,”আমরা সবাই হলটিতে জড়ো হয়েছিলাম যেখানে সাধারণত আমরা টিম মিটিং করি এবং ভিডিও সেশন করি, তবে পার্থক্যটা ছিল আমাদের ভবিষ্যতের প্রতিপক্ষরা আমাদের চোখের সামনে ভেসে উঠেছিল। হলের ভিতরে পরিবেশ একেবারে গমগম করছিল।”

দলের মিডফিল্ডার সঞ্জু যাদব হেসে বলেন, “ড্র হওয়ার সময় এটা আমাদের জন্য বেশ উত্তেজনাপূর্ণ ছিল। যে মুহুর্তে তারা গ্রুপ ‘এ’র জন্য দল বাছাই করছিল, আমাদের মধ্যে কেউ কেউ চোখ বন্ধ করে একে অপরের হাত ধরেছিল।” গ্রুপ ‘এ’তে ভারত আটবারের চ্যাম্পিয়ন চীন, দুইবারের চ্যাম্পিয়ন চাইনিজ তাইপে এবং পশ্চিম এশিয়ার হেভিওয়েট শক্তি ইরানের সঙ্গে একই গ্রুপে।

আশালতা হেসে বলে ওঠেন,”আমাদের প্রত্যেকের নিজস্ব ভবিষ্যদ্বাণী ছিল।” তিনি বলেন, “আমি ইরানের ভবিষ্যদ্বাণীও করেছিলাম, কারণ তাদের প্রতি আমার অনেক শ্রদ্ধা আছে, এবং আমরা শুরুতেই তাদের আমাদের গ্রুপে পেয়েছি।” আশালতা বলতে থাকেন, “তাদের প্রতি আমার অনেক শ্রদ্ধা আছে। তারা শুধু খুব ভালো দল তাই’ই নয়, তাদের দলের সব মহিলারা সেখানে যাওয়ার এবং সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে ফুটবল খেলার দৃঢ় সংকল্পই এখনও আমাকে আনন্দ দেয়।”

সম্প্রতি ভারত বাহারিনে একটি ফ্রেন্ডলি ম্যাচে চাইনিজ তাইপেইকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়েছে এবং ২০১৯ ভুবনেশ্বরে গোল্ড কাপে ইরানকে একই ব্যবধানে হারিয়েছিল, কিন্তু সঞ্জু অতীতের ফলাফলের ওপর নির্ভর করতে রাজী নয়। .

ভারতীয় মিডিও সঞ্জু বলেন, “আমরা সব দলের কাছে সমান সম্মান পেয়েছি। হ্যাঁ, আমরা ইরান এবং চাইনিজ তাইপেকে হারিয়েছি, কিন্তু সে সবই অতীত। এশিয়ান কাপে কেউই এক ইঞ্চিও জায়গা ছেড়ে দেবে না, এবং আমরা যা পাব তার জন্য আমাদের লড়াই করতে হবে।”

অন্যদিকে,ভারতীয় মহিলা দলের কিছু খেলোয়াড় আগামী মাসে জর্ডনে AFC মহিলা ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপের প্রস্তুতি নেওয়ার লক্ষ্যে গোকুলাম কেরালা এফসি’তে যোগ দিয়েছেন। উইঙ্গার ড্যাংমেই গ্রেসের সাফ কথা, “আমরা সবাই ড্র নিয়ে উত্তেজিত ছিলাম, এবং এখন সময় সামনের কাজের দিকে মনোনিবেশ করার।”

AFC মহিলা এশিয়ান কাপে ভারতের প্রথম ম্যাচ ২০ জানুয়ারী ইরানের বিরুদ্ধে নবি মুম্বই’এর ডিওয়াই পাটিল স্টেডিয়ামে। তারপরে চাইনিজ তাইপে’র বিরুদ্ধে ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়াম নবি মুম্বইতে,২৩ জানুয়ারি এবং তৃতীয় ম্যাচ চীনের বিরুদ্ধে, ফুটবল এরিনা মুম্বইতে, ২৬ জানুয়ারি।