প্রয়াত কিংবদন্তী অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন টেস্ট তারকা ক্রিকেটার অ্যাশলে ম্যালেট

474
Australia Ashley Mallett

Sports Desk: প্রাক্তন টেস্ট স্পিনার অ্যাশলে ম্যালেট ক্যান্সারের সাথে দীর্ঘ লড়াইয়ের পরে ৭৬ বছর বয়সে প্রয়াত হয়েছেন, শনিবার। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেওয়া একজন নম্র মানুষ হিসাবে স্মরণ করা হয় অ্যাশলে ম্যালেটকে। শান্তভাবে কথা বলার স্বভাবের মানুষ অ্যাশলের ডাকনাম ছিল “রাউডি”, এই ডাকনাম তার স্বভাবের একেবারে বিপরীত ছিল।

অ্যাশলে ম্যালেট ১৯৬৮ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তার অভিষেক ঘটে। গোটা ক্রিকেট কেরিয়ারে ৩৮ টি টেস্ট খেলে ২৯.৮৪ গড়ে ১৩২ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। ১৯৭২’র অ্যাডিলেডে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ৫৯ রানে ৮ উইকেট অস্ট্রেলিয়ায় ফিঙ্গার স্পিনারের হিসেবে অ্যাশলের পারফরম্যান্স আজও প্রশংসিত।

কিন্তু ভারতের বিরুদ্ধে পারফরম্যান্সকে অ্যাশলে ম্যালেটের সর্বশ্রেষ্ঠ পরিসংখ্যান হিসেবে ধরা হয়। ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজে ১৯৬৯-৭০ ভারত সফরে, অ্যাশলে ২৮ উইকেট নিয়েছিলেন ভারতের বিরুদ্ধে, যা আজও অস্ট্রেলিয়ার ভারত সফরে অ্যাশলে ম্যালেটের এই পারফরম্যান্সকে একটি বিরল সিরিজ জয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে আলোচিত হয়ে আসে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার চেয়ারম্যান রিচার্ড ফ্রয়েডেনস্টাইন বলেছেন, “অ্যাশলে ম্যালেট একজন দুর্দান্ত খেলোয়াড়, প্রশংসিত সাংবাদিক এবং অত্যন্ত প্রশংসিত লেখক ছিলেন।” “তিনি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে শুধুমাত্র একজন খেলোয়াড় হিসেবেই নয়, একজন অসাধারণ লেখক হিসেবেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন, যিনি সকল সময়ে মানুষের উপভোগ করার জন্য গেমের সেরা কিছু স্মৃতি এবং মুহূর্তগুলোকে সংরক্ষণ করেছিলেন। “অ্যাশলে একজন নম্র স্বভাবের মানুষ ছিলেন যা তার কাজগুলোকে তাঁর সংরক্ষিত ব্যক্তিত্ব জীবনকেও ছাপিয়ে গিয়েছে।”
অ্যাশলে ম্যালেট তার ক্রিকেট কেরিয়ার শেষ হওয়ার পর অনেক তরুণ স্পিনারকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন, স্পিন অস্ট্রেলিয়া প্রোগ্রাম এবং শ্রীলঙ্কায় স্পিন একাডেমি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। প্রয়াত অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তী ক্রিকেটার অ্যাশলে ম্যালেট ব্যাটিং গ্রেট ভিক্টর ট্রাম্পার এবং সহযোগী স্পিন উইজার্ড ক্ল্যারি গ্রিমেটের জীবনী সহ অসংখ্য বই লিখেছেন।