এপারে গড়িমসি, ওপার বাংলায় দেড় বছর পর খুলল স্কুল

659
Keeping Bangladesh's Students Learning During the COVID-19 Pandemic

নিউজ ডেস্ক: রবিবার বিদ্যালয়ে (school) কলরব, করোনা (Coronavirus) ভয় কাটিয়ে বাংলাদেশি (Bangladesh) পড়ুয়ারা ছুটল। প্রায় ১৮ মাস বন্ধ থাকার পর ফের সচল বাংলাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো। আছে ভয় আশঙ্কা। ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে যখন স্কুল-কলেজ বন্ধ ছিল বাংলাদেশে।

শনিবার বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, করোনা সংক্রমণ কমে আসায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে, সংক্রমণ বেড়ে গেলে আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্বান্ত নেওয়া হতে পারে।

Keeping Bangladesh's Students Learning During the COVID-19 Pandemic

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে দিনে তিনটি করে ক্লাস হবে। এই সময়সূচি সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠানো হয়। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হচ্ছে।

দীর্ঘদিন পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলে আসবাবপত্র ও দেয়াল রাঙানো হচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ধূলোর স্তূপ জমেছিল। আবার শিক্ষার্থীদের কলরব শুরু। গত ছয় মাসের অনুসন্ধান বলছে, গত দেড় বছরে প্রাথমিকের অনেক দরিদ্র শিক্ষার্থী দিনমজুর ও হকার হয়েছে। মাধ্যমিকের অনেক মেয়ে শিক্ষার্থীর এরই মধ্যে বিয়ে হয়ে গেছে। সংসারের পাশাপাশি তারা আবারও শ্রেণিকক্ষে বসবে এমন ভাবনা নেই অধিকাংশের মধ্যে। ফলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললেও হয়তো অনেক পুরনো শিক্ষার্থীর দেখা মিলবে না শ্রেণিকক্ষে।