Deltacron : করোনার নতুন উপপ্রজাতিতে বিদ্যমান ডেল্টা এবং ওমিক্রনের বৈশিষ্ট্য

559

ডেল্টা, ওমিক্রনের পর করোনার আরও একটি উপপ্রজাতির খোঁজ মিলেছে৷ যার নতুন নাম ‘ডেল্টাক্রন’ (Deltacron)। যদিও এই প্রজাতির উদ্ভাবন নিয়ে কিছু সন্দেহ রয়েছে বৈজ্ঞানিক মহলে।

আন্তর্জাতিক বৈজ্ঞানিক মহলের একাংশের অনুমান, ল্যাবে পরীক্ষানিরীক্ষার সময় কিছু ভুলের কারণে ডেল্টাক্রনের জন্ম হয়েছে। যদিও তা মানতে নারাজ সাইপ্রাসের এক বিজ্ঞানী। তিনি দাবি করেছেন, করোনার এই নয়া উপপ্রজাতি ল্যাবে সৃষ্ট নয়। স্বাভাবিক নিয়মেই মিউটেশন হচ্ছে করোনা ভাইরাসের। ডেল্টা এবং ওমিক্রন উভয়ের কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে ডেল্টাক্রনে।

যারা কোভিডে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে রয়েছেন তাঁদের শরীরের মধ্যে এই ভেরিয়েন্টটি বিদ্যমান। ডেল্টাক্রনের জেনেটিক ব্যাকগ্রাউন্ড করোনার ডেল্টা প্রজাতির মতো। আবার মিউটেশন ওমিক্রনের মতো।

ভাইরাল জিনগুলি প্রোটিনের ফর্মগুলি নির্ধারণ করে যা বেশ কয়েকটি নির্দিষ্ট কাজ সম্পাদন করে। ওমিক্রন এবং ডেল্টা প্রত্যেকের স্পাইক প্রোটিনে মিউটেশন রয়েছে যা তাদের মানব কোষে প্রবেশের ক্ষমতাকে প্রভাবিত করে, এর ফলে ওমিক্রন আরও সংক্রামক হয়ে ওঠে। নিক লোমান নামের এক বিজ্ঞানীর মতে, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এর অনেক রূপ আরও প্রকাশ্যে আসবে।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই ২৫ জনের শরীরে এই নতুন সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত যা দেখা যাচ্ছে, তাতে কোভিড নিয়ে হাসপাতালে যাঁরা ভর্তি হচ্ছেন, তাঁদের মধ্যে ‘ডেল্টাক্রন’-এর আশঙ্কা কিছুটা বেশি। 

অন্যদিকে সাইপ্রাসের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, এখনই আতঙ্কিত হওয়ার কোনও বিষয় নেই।