Omicron: ঝুঁকিপূর্ণ দেশ থেকে আসা ৬ যাত্রী করোনা পজিটিভ, ফের আতঙ্ক মহারাষ্ট্রে

446
panic in Maharashtra

নিউজ ডেস্ক, নয়াদিল্লি: ভারত সরকারের ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হিসেবে চিহ্নিত করা দেশ থেকে আগত ৬ পর্যটক করোনা পজিটিভ (corona positive)। তবে আক্রান্তরা ওমিক্রন ভেরিয়েন্টে (Omicron varient) আক্রান্ত হয়েছেন কিনা সেটা এখনও জানা যায়নি। ঝুঁকিপূর্ণ দেশ থেকে আসা ৬ যাত্রী করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরে নতুন করে মহারাষ্ট্রে (maharastra) উদ্বেগ ছড়িয়েছে।

মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, সম্প্রতি কেন্দ্র নির্দেশে দিয়েছে বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের বিমানবন্দরেই করোনা পরীক্ষা (corona test) করতে হবে। সেই পরীক্ষা করার পরেই ৬ যাত্রীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। ওই ছয়জনের মধ্যে দু’জনের শরীরে মৃদু উপসর্গ ছিল। বাকিরা অবশ্য উপসর্গহীন। স্বাস্থ্য দফতর আরও জানিয়েছে আক্রান্তদের সোয়াবের নমুনা ইতিমধ্যেই জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে কারা এসেছিলেন তা জানতে খোঁজ শুরু হয়েছে।

স্বাস্থ্য দফতর আরও জানিয়েছে, আক্রান্তদের মধ্যে তিনজন মুম্বইয়ের কল্যান-ডোম্বিভ্যালির বাসিন্দা। চতুর্থজনের বাড়ি পুণে। বাকি দু’জন নাইজেরিয়ার নাগরিক। ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট ঠেকাতে বুধবার থেকেই দেশের সমস্ত বিমানবন্দরে ঝুঁকিপূর্ণ দেশ থেকে আগত যাত্রীদের করোনা পরীক্ষা শুরু হয়ে গিয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ দেশ থেকে আসা কোনও ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হলে তাঁকে সঙ্গে সঙ্গেই কোয়ারেন্টাইনে রাখার কথা বলেছে কেন্দ্র।

কেন্দ্রের পাশাপাশি করোনা রুখতে মহারাষ্ট্র সরকারও নতুন করে বেশ কিছু নির্দেশিকা জারি করেছে। মহারাষ্ট্র সরকার তার নির্দেশে জানিয়েছে, ঝুঁকিপূর্ণ দেশ থেকে কোনও যাত্রী এলে তাঁকে বাধ্যতামূলক ভাবে সাতদিন কোয়ারান্টাইনে থাকতে হবে। বিমানবন্দরে পরীক্ষার সাত দিন পর ফের ওই যাত্রীর করোনা পরীক্ষা করা হবে। রাজ্য সরকার তার নির্দেশে আরও জানিয়েছে, যারা বিদেশ থেকে আসবেন তাদের বিগত ১৫ দিনের ভ্রমণের বিস্তারিত বিবরণ বা ট্রাভেল হিস্ট্রি জানাতে হবে। অর্থাৎ তাঁরা ওই সময়ের মধ্যে অন্য কোনও দেশে গিয়েছে কিনা, গিয়ে থাকলে কতদিন সেখানে ছিলেন সে বিষয়ে জানাতে হবে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে। যদি কোনও যাত্রী বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষকে ভুল তথ্য দিয়ে থাকেন তবে তাঁর বিরুদ্ধে বিপর্যয় মোকাবিলা আইনে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।