6.3 C
London
Tuesday, November 29, 2022
Homeদেশের দশদিকModi: 'বেঁচে ফিরে' প্রধানমন্ত্রী চুপ কেন? উঠছে প্রশ্ন

Latest Posts

Modi: ‘বেঁচে ফিরে’ প্রধানমন্ত্রী চুপ কেন? উঠছে প্রশ্ন

- Advertisement -

‘বেঁচে ফিরতে পেরেছি’, ভাতিন্দা বিমানবন্দরে পৌঁছে নাকি এমনটাই বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ সর্বভারতীয় সংবাদসংস্থার পক্ষ থেকে এই খবর প্রকাশ হওয়া মাত্রই তা জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল। যদিও এই খবরের সত্যতা নিয়ে সন্দেহ দানা বেঁধেছে। কিছু প্রশ্ন তোলা হয়েছে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে।

কংগ্রেসের পক্ষ থেকে প্রশ্ন তোলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী যদি সত্যিই এমন কথা বলে থাকেন তাহলে তার প্রমাণ কোথায়। মোদী নিজে কিংবা প্রধানমন্ত্রীর অফিস, বিজেপির পক্ষ থেকে এ প্রসঙ্গ কিছু বলা হচ্ছে না কেন?

- Advertisement -

পাঞ্জাবের ফিরোজপুরে এক কর্মসূচীতে যাওয়ার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রীর। আকাশ পথে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল প্রথমে। খারাপ আবহাওয়ার কারণে পরে বদলানো হয় পরিকল্পনা। সড়ক পথেই কনভয় নিয়ে এগিয়ে যান তিনি। যাওয়ার পথে ভাতিন্দার কাছে এক ফ্লাইওভারে প্রায় ২০ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকে তাঁর কনভয়। শেষ পর্যন্ত গাড়ি ঘুরিয়ে নেন প্রধানমন্ত্রী। অভিযোগ, কংগ্রেস পরিচালিত পাঞ্জাব সরকার সুনিশ্চিত করেনি নরেন্দ্র মোদীর নিরাপত্তা। স্মৃতি ইরানির মতে, প্রধানমন্ত্রীর ক্ষতি করতে চেয়েছিল পাঞ্জাব সরকার। এই নিয়ে এখন চলছে রাজনৈতিক তরজা।

সর্বভারতীয় এক সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, বিমানবন্দরে ফিরে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘আপনাদের মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলবেন, ভাতিন্দা বিমানবন্দরে আমি বেঁচে ফিরেছি’।

কংগ্রেস মুখপাত্ত রণদীপ সুরজেওয়ালার প্রশ্ন, ‘পিএমও, বিজেপি কিংবা প্রধানমন্ত্রী নিজে কিছু বলছেন না কেন? প্রধানমন্ত্রীর কনভয়ে কি হামলা চালানো হয়েছিল? নক্সাল কিংবা সন্ত্রাসবাদী হামলা?’

পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ চন্নির কথায়, ‘প্রধানমন্ত্রীকে রক্ষা করার জন্য আমি আমার জীবনকেও বাজি রাখতে প্রস্তুত। কিন্তু উনি বিপদের মধ্যে পড়েননি। নিরাপত্তায় কোনও ত্রুটি ছিল না। দেশের প্রধানমন্ত্রীকে নিরাপত্তা দেওয়ার ব্যাপারে রাজ্যের তরফে কোনও রকম গাফিলতি হয়নি। তিনি আরও বলেন, কনভয় আটকে পড়লে প্রধানমন্ত্রীকে অন্য রাস্তা দিয়ে হুসেনওয়ালা যেতে বলা হলে তিনি রাজি হননি।’

- Advertisement -

Video News

Top News Headlines

Latest Posts

Don't Miss