Corona Effect: ব্যাপক মার খেয়েছে দেশের পর্যটন শিল্প, জানাল কেন্দ্র

447
Tourism

News Desk, New Delhi:করোনা মহামারী পর্যটনের (Tourism) ওপর কতটা প্রভাব ফেলেছে সে বিষয়ে কেন্দ্রের কাছে জানতে চাইলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায় (Sougata Roy)।

সোমবার কেন্দ্রীয় পর্যটন মন্ত্রীর কাছে সৌগত রায় জানতে চান করোনাজনিত (corona pandemic ) কারণে পর্যটকের সংখ্যা কি কমেছে? বিশেষত বিদেশি পর্যযটক? যদি কমে থাকে তবে বিগত বছরগুলির তুলনায় কতটা কমেছে? দেশের পর্যটন ব্যবস্থাকে চাঙ্গা করতে সরকার কি কোন বিশেষ প্যাকেজ (Stumulating Package) দেওয়ার কথা ভাবছে? দেশে পর্যটকের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য কেন্দ্র কি কোন বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে?

সৌগত রায়ের এই প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় পর্যটন মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি জানিয়েছেন, ২০১৯ সালে বিভিন্ন দেশ থেকে ভারতে এক কোটি ৯ লাখ ৩০ হাজার ৩৫৫ জন পর্যটক এসেছিলেন। কিন্তু করোনাজনিত কারণে ২০২০ সালে সেই সংখ্যাটি কমে হয় ২৭ লক্ষ ৪৪ হাজার ৭৬৬ জন। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশে ৬ লক্ষ ৭৫ হাজার ১২ জন বিদেশি পর্যটক এসেছেন। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই সংখ্যা ছিল প্রায় ২৫ লক্ষ। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এই জবাব থেকে এটাই স্পষ্ট হয়েছে যে, করোনাজনিত পরিস্থিতি দেশের পর্যটন ব্যবস্থায় বড় মাপের নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। বিদেশি পর্যটকের সংখ্যা উল্লেখজনকভাবে কমায় কমেছে সরকারের আয়।

পর্যটন মন্ত্রী আরও জানান, পর্যটন ব্যবস্থাকে চাঙ্গা করতে সরকার একাধিক ব্যবস্থা নিয়েছে। যার মধ্যে কিছু আর্থিক ব্যবস্থা রয়েছে, পাশাপাশি রয়েছে অন্যান্য ব্যবস্থাও। যে সমস্ত ব্যক্তি বা ব্যবসায়ী পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাঁদের সুবিধার জন্য বেশ কিছু ক্ষেত্রে কর ছাড় দেওয়া হয়েছে। করোনাজনিত কারণে যে সমস্ত ক্ষেত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেই সমস্ত ক্ষেত্রগুলিকে সাহায্য করতে ২০২১-এর ২৮ জুন কেন্দ্র বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণা করে। এই এই প্যাকেজের মধ্যে পর্যটন ব্যবস্থার জন্যও বিশেষ অর্থ সাহায্যের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। পর্যটন ব্যবস্থাকে সহজ ও স্বাভাবিক করতে হোটেল ও রেস্তোরাঁ গুলির জন্য করোনাজনিত বিধি নিষেধেও কিছু ছাড় দেওয়া হয়েছে।

বিদেশি পর্যটকরা যাতে স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গেই ভারতে আসতে পারেন তার জন্য স্বরাষ্ট্র ও বিদেশমন্ত্রকও বিধি নিষেধের ক্ষেত্রে বেশ কিছু শিথিলতা দিয়েছে। বিদেশি পর্যটকরা যাতে ভারতে আসতে পারেন তার জন্য যে সমস্ত নিষেধাজ্ঞা ছিল তাও ধাপে ধাপে তুলে নেওয়া হয়েছে। পর্যটকরা যাতে মনে করলে এদেশে আসতে পারেন তার জন্য ই-ভিসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই ই-ভিসার মেয়াদ ছিল এক মাস।

পাশাপাশি দেশের যে সমস্ত মানুষ নিয়মিত এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে ঘুরতে গিয়ে থাকেন তাদের জন্যও বেশ কিছু ছাড় দেওয়া হয়েছে। পর্যটনে উৎসাহ দিতে সরকার চালু করেছে ‘দেখো আপনা দেশ’ নামে একটি প্রকল্প। পর্যটনের জন্য মানুষকে আকৃষ্ট করতে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেও প্রচার চালানোর ব্যবস্থা করেছে সরকার।