""
Friday, October 7, 2022
Homeস্পোর্টস-স্পটEileen Ash: প্রয়াত ক্রিকেটের সবচেয়ে প্রবীণ মহিলা টেস্ট ক্রিকেটার

Latest Posts

Eileen Ash: প্রয়াত ক্রিকেটের সবচেয়ে প্রবীণ মহিলা টেস্ট ক্রিকেটার

- Advertisement -

নিউজ ডেস্ক: প্রয়াত হলেন বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে প্রবীণ মহিলা টেস্ট ক্রিকেটার ও বিশ্ব ক্রিকেটের দিদা নামে পরিচিত এলিন অ্যাশ (Eileen Ash)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ১১০ বছর। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) ও বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির পক্ষ থেকে শোকবার্তা প্রকাশ করা হয়েছে।

১৯১১ সালের ৩০ অক্টোবর তাঁর জন্ম হয় লন্ডনে। ১৯৩৭ সালে তার টেস্ট অভিষেক হয় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে ও পরে সবমিলিয়ে তিনি মোট সাতটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন। মূলত ডানহাতি মিডিয়াম পেসার ছিলেন। ৭টি টেস্টে ২৩ গড়ে ১০টি উইকেট পান। তিনি ১৯৪৯ সালে অকল্যান্ডে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তাঁর শেষ টেস্ট ম্যাচ খেলেন। ২০১৭ মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালে লর্ডসে বেল বাজিয়ে তিনি শুভ উদ্বোধন করেছিলেন। ২০১৯ সালে তাঁকে এমসিসির আজীবন সদস্যপদ দেওয়া হয়। ইসিবি ও আইসিসির পক্ষ থেকে টুইটারে তাঁর মৃত্যু সংবাদ প্রকাশ করা হয়। তাঁর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ক্রিকেট বিশ্ব।

- Advertisement -

এলিন ১৯৩৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে একটি টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক করেন। ইংল্যান্ডের এই জোরে বোলার ৭ টি ম্যাচে ১০ টি উইকেট নেন এবং ১৯৪৯ সালে তিনি নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলে ক্রিকেটকে বিদায় জানান। ঘরোয়া ক্রিকেটে তিনি সিভিল সার্ভিস, মিডলসেক্স এবং সাউথ অফ ইংল্যান্ডের হয়ে খেলেছেন। শুধু তাই নয় এই মহিলা দেশের হয়েও কাজ করেছেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি গুপ্তচরের দায়িত্বও পালন করেছেন।ব্যক্তিগত জীবনে মাত্র ১৮ বছর বয়সে সিভিল সার্ভিসে যোগ দেন। তারপর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় প্রায় ১১ বছর গোয়েন্দা সংস্থা এমআই সিক্সের হয়ে কাজ করেছিলেন। তবে পরবর্তীকালে ফের ক্রিকেট জগতে ফিরেছিলেন তিনি।

সবচেয়ে বেশি বছর বয়স হওয়ার জন্য ক্রিকেট দুনিয়ার কাছে তিনি ছিলেন ‘দিদা’। আইসিসি বিবৃতিতে লিখেছে, ‘১১০ বছর বয়সে অ্যাশের মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে দুঃখিত। ১৯৩৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অ্যাশের জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছিল। তিনি একজন অসাধারণ মহিলা, যিনি এক দুরন্ত জীবনযাপন করতেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে এবং পরে সব মিলিয়ে সাতটি টেস্টে তিনি দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। ১৯৪৯ সালে তিনি অবসর গ্রহণ করেছিলেন।’ ইসিবি-র তরফ থেকেও দেওয়া হয়েছে শোক বার্তা। লেখা হয়েছে, ‘ইংল্যান্ড ক্রিকেট তাদের পরিবারের এক প্রবীণ সদস্যকে হারাল। চলে গেলেন এলিন অ্যাশ। মৃত্যুকালে সময় হয়েছিল ১১০।’

- Advertisement -

Video News

Top News Headlines

Latest Posts

Don't Miss