8.4 C
London
Sunday, February 5, 2023
HomeUncategorizedSubramanian Swamy: বাংলাদেশের হিংসার ঘটনায় মোদি সরকার নীরব কেন, প্রশ্ন বিজেপি সাংসদ...

Latest Posts

Subramanian Swamy: বাংলাদেশের হিংসার ঘটনায় মোদি সরকার নীরব কেন, প্রশ্ন বিজেপি সাংসদ স্বামীর

- Advertisement -

নিউজ ডেস্ক, নয়াদিল্লি: বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক হিংসা নিয়ে এবার সরাসরি নরেন্দ্র মোদি সরকারকে আক্রমণ করলেন বিজেপির বিক্ষুব্ধ সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী (Subramanian Swamy)। দলের এই সাংসদের প্রশ্ন, বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক হিংসা নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার নীরব কেন? এই মৌনতার কারণ কী? ভারত সরকার এখন কি বাংলাদেশকেও ভয় পাচ্ছে?

বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক হিংসা তথা অসংখ্য হিন্দু পরিবারের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনার পর প্রায় এক সপ্তাহ কেটে গিয়েছে। এখনও বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছোটখাট হিংসার ঘটনা সামনে আসছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে এই হিংসার প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। বুদ্ধিজীবীরাও সরব হয়েছেন। রাষ্ট্রসংঘও এক বিবৃতিতে বাংলাদেশের ঘটনার নিন্দা করেছে। কিন্তু এই হিংসা নিয়ে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকার একটি শব্দও খরচ করেনি। এমনকী, তথাকথিত হিন্দুত্ববাদী দল হিসাবে পরিচিত বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব বাংলাদেশের ঘটনায় নীরব দর্শক।

- Advertisement -

পশ্চিমবঙ্গের বিজেপির নেতারা বাংলাদেশের ঘটনা নিয়ে অল্প-বিস্তর প্রতিবাদ জানালেও দলের সর্বভারতীয় স্তরের কোনও শীর্ষ নেতাকেই এ ঘটনায় মুখ খুলতে দেখা যায়নি। যা নিয়ে এবার দলের অন্দরেই কটাক্ষের শিকার হতে হল কেন্দ্রের মোদি সরকারকে। বিজেপির রাজ্যসভা সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী এদিন বলছেন,”বাংলাদেশে হিন্দুদের হত্যা হচ্ছে। ভেঙে দেওয়া মন্দির ও দেবতার মূর্তি। এ নিয়ে বিজেপি কেন প্রতিবাদ করছে না? মোদি সরকার কি এখন বাংলাদেশকেও ভয় পাচ্ছে? লাদাখে সীমান্ত পেরিয়ে চিন আমাদের দেশে ঢুকে পড়ছে। আফগানিস্তানে তালিবান আমাদের ভয় দেখাচ্ছে। ওদের ভয়ে আমরা জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে আলোচনায় বসতে বাধ্য হচ্ছি। এরপর কি আমরা নেপাল, ভুটান মালদ্বীপকেও ভয় পাব?”

স্বামী এর আগেও একাধিক বিষয়ে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। মোদির আর্থিক নীতির তীব্র বিরোধী হিসাবেই চিহ্নিত স্বামী। রাজনৈতিক মহল মনে করছে, বাংলাদেশের হিংসার মতো জ্বলন্ত ইস্যুতে স্বামীর এই আক্রমণ মোদি সরকারকে নিশ্চিতভাবেই অস্বস্তিতে ফেলবে। দল হিসাবে বিজেপি যেমন বাংলাদেশের ঘটনা নিয়ে চুপ করে আছে, তেমনই মোদি সরকারও এ বিষয়ে তার অবস্থান স্পষ্ট করেনি। ভারত সরকারের কোনও শীর্ষ কর্তাকেও সেভাবে বাংলাদেশের ঘটনার নিন্দা করতে দেখা যায়নি ।

গত সপ্তাহে এক বিবৃতিতে বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, “সম্প্রতি বাংলাদেশের কিছু ধর্মীয় অনুষ্ঠানে অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটনার খবর আমরা পেয়েছি। তবে আমরা এটাও লক্ষ্য করেছি যে, বাংলাদেশ সরকার ওই ঘটনায় দ্রুত যথাযথ ব্যবস্থা নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে।” রাজনৈতিক মহল মনে করছে, বাংলাদেশের ঘটনা নিয়ে মোদি সরকার ধরি মাছ না ছুঁই পানি অবস্থান নিয়েছে। সে কারণেই সরকার বাংলাদেশের ঘটনায় কোনও কড়া প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

- Advertisement -

Video News

Top News Headlines

Latest Posts

Don't Miss