ভিন জাতের ছেলেকে বিয়ে করায় মেয়েকে ধর্ষণ করে খুন করল বাবা

485
marrying

News Desk: ভালবেসে ভিন জাতের একটি ছেলেকে বিয়ে করেছিল মেয়ে। এই বিয়ে কোনওভাবেই মেনে নিতে পারেননি ওই তরুণীর বাবা। মেয়েকে শিক্ষা দিতে তাকে ধর্ষণ (rape) করে খুন করল বাবা।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের ভোপাল (bhopal) সংলগ্ন রতিবাদ (ratibad) শহরে। তরুণীর দিদির অভিযোগের ভিত্তিতে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃত ব্যক্তি জেরায় তার অপরাধ স্বীকার করেছে বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, দু’দিন আগে সামাসগড়ের (samasgarh forest) জঙ্গলে ওই তরুণী ও তার ৮ মাসের শিশু সন্তানের দেহ মিলেছিল। মা ও শিশুর মৃত্যুর তদন্ত শুরু করে ভোপাল পুলিশ। জানতে পারে ওই তরুণীর কথা। এরপরই পুলিশ ওই তরুণীর বাড়ি গিয়ে তার মা বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে শুরু করে। তখনই জানতে পারে তরুণীর বাবা তার মেয়ের বিয়ে নিয়ে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ ছিল। এরপরই পুলিশ মৃত তরুণীর বাবাকে একটানা জেরা করতে শুরু করে।

no-rape

প্রথমদিকে ওই ব্যক্তি একের পর এক অসংলগ্ন কথাবার্তা বলতে থাকে। এতেই পুলিশের সন্দেহ আরও দৃঢ় হয়। শেষ পর্যন্ত দীর্ঘ পুলিশি জেরায় সে নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করে।

রতিবাদ থেকে ধৃত ওই ব্যক্তি জেরায় জানিয়েছে, তাঁদের অমতেই মেয়ে ভিন জাতের একটি ছেলেকে বিয়ে করেছিল। এ কারণে তাঁদের প্রতিদিন প্রতিবেশীদের গঞ্জনা সহ্য করতে হচ্ছিল। যা নিয়ে মেয়ের সঙ্গে রীতিমতো বিবাদ শুরু হয় তার মা-বাবার। সম্প্রতি ওই তরুণীর শিশুটি অসুখে মারা যায়। মৃত শিশুটিকে কবর দেওয়ার জন্য সামাসগড়ের জঙ্গলে নিয়ে যায় ওই তরুণী। সঙ্গে ছিল তার বাবাও।

<

p style=”text-align: justify;”>সেখানেও ওই তরুণীর সঙ্গে তার বাবার প্রবল ঝগড়া হয়। শেষ পর্যন্ত রাগের মাথায় বাবা নিজেই তার মেয়েকে ধর্ষণ করে। তারপর তাকে খুন করে সামাসগড়ের জঙ্গলে ফেলে রেখে বাড়ি ফেরে। বিয়ে (marriage) নিয়ে অশান্তি থাকলেও পরিবারের কেউই ভাবতে পারেনি যে, বাবা এ ধরনের ঘৃণ্য অপরাধ করবে। ভোপাল পুলিশ ইতিমধ্যেই ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় মামলা দায়ের করেছে।