Gautam Gambhir: শাস্ত্রীর বক্তব্যের নিন্দায় মুখর গৌতম গম্ভীর

496
Gautam Gambhir condemned Ravi Shastri's statement

Sports desk: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) রবি শাস্ত্রীর থেকে প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়কে টিম ইন্ডিয়ার হেড কোচের ব্যাটন তুলে দিয়েছে, অনেক প্রত্যাশা নিয়ে রাহুল দ্রাবিড় দলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন।

টিম ইন্ডিয়ার হেড কোচ হিসাবে শাস্ত্রীর ত্রুটিগুলির দিকে ফিরে তাকাতে বলা হলে, ভারতের প্রাক্তন ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর বিদেশের মাটিতে ভারতের বড় জয়ের পরে শাস্ত্রীর বক্তব্যকে নিশানা করে সমালোচনায় মুখর হয়ে উঠেছেন।

ক্রিকেটের রেকর্ডের দিক দিয়ে রবি শাস্ত্রী অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের টেস্ট সিরিজ জয়কে (২০১৮-১৯) ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপ জয়ের চেয়ে “বড়, বা এমনকি বড়” হিসাবে লেবেল অর্থাৎ তকমা দিয়েছিলেন। শাস্ত্রীর এই বক্তব্যে গম্ভীর মোটেও সন্তুষ্ট হননি।

gautam gambhir

রবি শাস্ত্রীর এই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে গৌতম গম্ভীরের বক্তব্য, “একটা জিনিস যা আমি আশ্চর্যজনক পেয়েছি তা হল আপনি যখন ভাল পারফরম্যান্স করেন, তখন আপনি সাধারণত এই নিয়ে গর্ব করেন না। অন্যরা এই সম্পর্কে কথা বললে এটি ভাল। ২০১১ সালে যখন আমরা বিশ্বকাপ জিতেছিলাম, তখন কেউ বিবৃতি দেয়নি যে আমরা বিশ্বের সেরা দল, দেশকে একা ছেড়ে দিন।”

টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন হেড কোচ রবি শাস্ত্রীর সমালোচনা প্রসঙ্গে গম্ভীর বলেন,”আপনি যখন জিতবেন, অন্যদের এই নিয়ে কথা বলতে দিন। অস্ট্রেলিয়ায় আপনি (টেস্ট সিরিজ) জিতেছেন, এটা একটা বড় অর্জন এতে সন্দেহ নেই। আপনি ইংল্যান্ডে ভালো পারফর্ম করেছেন, সন্দেহ নেই। তবে অন্যদের আপনার প্রশংসা করতে দিন। রাহুল দ্রাবিড় কখনই এমন বক্তব্য দেবেন না। ভারতীয় দল ভালো খেলুক বা না করুক, তার বক্তব্য সবসময়ই ভারসাম্যপূর্ণ থাকবে। এছাড়াও, এই বিষয়গুলো অন্যান্য খেলোয়াড়দের প্রতিফলিত করবে।”

নিজের অসন্তুষ্টির অবস্থানকে চেপে না রেখে প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার গৌতম গম্ভীরের সাফ কথা, “ফলাফল প্রেক্ষাপটে নম্রতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ক্রিকেটে চিরকাল চলবে না। আমি মনে করি দ্রাবিড়ের প্রধান লক্ষ্য হবে খেলোয়াড়দের আগে ভালো মানুষ হওয়ার দিকে এগিয়ে দেওয়া।”

টিম ইন্ডিয়ার হেড কোচ হিসেবে রাহুল দ্রাবিড়ের মেয়াদ শুরু হয়েছে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। ভারত নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক রোহিত শর্মার নেতৃত্বতে নিউজিল্যান্ডকে ক্লিন সুইপ, তিন ম্যাচে জয় ছিনিয়ে কিউইদের হোয়াইট-ওয়াশ করেছে। সময়ের প্রেক্ষাপট এমনই যে বিরাট কোহলি, জসপ্রীত বুমরাহ, রবীন্দ্র জাদেজার মতো খেলোয়াড়দের অনুপস্থিতি টি টোয়েন্টি সিরিজে ছিল নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে, কেননা বিসিসিআই অনুপস্থিত খেলোয়াড়দের বিশ্রামের অনুমতি দিয়েছিল।

টি টোয়েন্টি সিরিজের পরে, ভারত নিউজিল্যান্ড দুই দলই দুটি করে টেস্ট ম্যাচ খেলবে। বিরাট কোহলি কানপুরে প্রথম টেস্ট মিস করবেন। মুম্বইয়ে দ্বিতীয় টেস্টে কোহলিকে আবার ক্যাপ্টেন হিসেবে কাজ শুরু করতে দেখা যাবে। কিউইদের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে দলের অধিনায়কত্ব করবেন অজিঙ্কা রাহানে।